chudanga immature marriage

৯৯৯-এ কল দিয়ে প্রেমিকার বাল্যবিয়ে বন্ধ করল প্রেমিক

বাংলাদেশ

প্রেমিকার বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে ৯৯৯-এ কল দিয়ে তা বন্ধ করে দিল কলেজপড়ুয়া প্রেমিক। ঘটনাটি ঘটেছে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গার ফরিদপুর গ্রামে। 

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা করেন দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে। সেই সঙ্গে মেয়ের বাবাকে বাল্যবিয়ে আয়োজন করার অপরাধে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার বেলগাছী ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামের নাসির উদ্দিনের মেয়ে এম সবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। ওই স্কুলছাত্রী একই গ্রামের কলেজপড়ুয়া এক ছাত্রের সঙ্গে গড়ে তোলে প্রেমের সম্পর্ক। 

এ বিষয়টি মেয়ের বাবা জানতে পেরে মেয়েকে বিয়ে দিয়ে দেওয়ার জন্য শুরু করেন পাত্র খোঁজা। কয়েক দিন আগে কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার হালসা নকরবাকা গ্রামের রুবেল নামে এক ছেলের সঙ্গে ঠিক হয় বিয়ে। ১৫ নভেম্বর বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন মেয়ের বাবা। কিছুক্ষণ পরই আসবে বর। এরই মাঝে নাবালিকা মেয়ের কলেজপড়ুয়া প্রেমিক ৯৯৯-এ কল দিয়ে জানিয়ে দেন প্রেমিকার বাল্যবিয়ের কথা। 

খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার রনি আলম নূর উপস্থিত হয়ে বন্ধ করে দেন বিয়ে। একই সঙ্গে মেয়ের বাবাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি।