Mitsubishi Pajero Jeep car পাজেরো গাড়ি জীপ

মেয়রের কোটি টাকার গাড়ি, দরপত্র জমা পড়েছে মাত্র একটি

বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরীর নতুন গাড়ির জন্য মাত্র একটি দরপত্র জমা পড়েছে। র‍্যাংগস মোটরস লিমিটেড এই গাড়ির জন্য দর দিয়েছে ১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। গতকাল বৃহস্পতিবার দরপত্র উন্মুক্ত করা হয়। একটি মাত্র দরপত্র জমা পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) সুদীপ বসাক।

তিনি বলেন, আগামী রবি বা সোমবার দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। ওই সভায় দরপত্রদাতার কাগজপত্র যাচাই–বাছাই করা হবে। এরপর কমিটি গাড়ি কেনার কার্যাদেশ দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। গত বুধবার ‘মেয়রের জন্য কোটি টাকার গাড়ি কেনার উদ্যোগ’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম চৌধুরী গত ২৭ জানুয়ারির নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি ১৫ ফেব্রুয়ারি মেয়রের দায়িত্ব নেন।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে মেয়রের জন্য নতুন গাড়ি কেনার বিষয়ে দরপত্র বিজ্ঞপ্তি দেয় সিটি করপোরেশন। এ জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা। সিটি করপোরেশনের আর্থিক সংকট রয়েছে। বিভিন্ন খাতে বকেয়া সাড়ে চার শ কোটি টাকার বেশি। আবার এখন করোনা মহামারি। এই অবস্থায় মেয়রের জন্য গাড়ি কেনার প্রক্রিয়াকে হতাশাজনক বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা।

সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, ২০০৬ সালে তৎকালীন মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সময় সর্বশেষ ১ কোটি ১০ লাখ টাকায় মিতসুবিশি ব্র্যান্ডের পাজেরো গাড়ি কেনা হয়েছিল। মহিউদ্দিন চৌধুরীর পর সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মনজুর আলমও এই গাড়ি (চট্ট-মেট্রো ঘ-১১-০৭৩৭) ব্যবহার করতেন। তবে আরেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এই গাড়ি ব্যবহার করতেন না। তিনি ব্যবহার করতেন নিজের গাড়ি। তখন ওই গাড়ি তৎকালীন প্রধান প্রকৌশলী মহিউদ্দিন আহমদ ব্যবহার করতেন। অবশ্য বিদায়ী প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম মেয়রের জন্য নির্ধারিত গাড়ি ব্যবহার করতেন।