cigarette smoking ধূমপান সিগারেট

বিশ্বে কমেছে ধূমপায়ী

লাইফস্টাইল আন্তর্জাতিক

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিশ্বজুড়ে ধীরে ধীরে ধূমপায়ীর সংখ্যা কমেছে। মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এ তথ্য জানিয়েছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে বিশ্বের দেশগুলোকে তামাকজাত পণ্য নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা আরও জোরদার করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

তারা বলছে, এতে লাখ লাখ মানুষের মৃত্যু এড়ানো যাবে। উল্লেখ্য, ডব্লিউএইচওর এ প্রতিবেদনে ইলেকট্রনিক সিগারেট ব্যবহারকারীদের হিসাবে ধরা হয়নি।

মঙ্গলবার তামাকের ব্যবহার নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ডব্লিউএইচও। নতুন ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালে ধূমপান করেন, এমন মানুষ ছিলেন প্রায় ১৩০ কোটি।

বিশ্বে ধূমপায়ীর সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় কমেছে। ২০১৯ সালে বিশ্বে মোট ধূমপায়ীর সংখ্যা ছিল ১৩২ কোটি।

ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, গতবছর বিশ্বের ৩৬ দশমিক ৭ শতাংশ পুরুষ ও ৭ দশমিক ৮ শতাংশ নারী তামাকজাত পণ্য ব্যবহার করেছেন।

তবে সবচেয়ে বড় উদ্বেগের বিষয় হলো, এর মধ্যে ১৩ থেকে ১৫ বছর বয়সি ৩ কোটি ৮০ লাখ কিশোর-কিশোরীও তামাকজাত পণ্যে আসক্ত।

প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বে ধূমপায়ীর সংখ্যা ১২৭ কোটিতে নেমে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশ্বজুড়ে জনসংখ্যা বাড়লেও সাত বছরে বিশ্বের ধূমপায়ীর সংখ্যা পাঁচ কোটি কমবে। 

প্রতিবেদনে আরও দেখা যাচ্ছে, ২০০০ সালে ১৫ বছরের বেশি বয়সি বিশ্বের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ তামাকজাত পণ্য ব্যবহার করতেন। তবে ২০২৫ সালের মধ্যে এ সংখ্যা আরও কমবে। ওই সময়ের মধ্যে ১৫ বছরের বেশি বয়সি জনসংখ্যার এক-পঞ্চমাংশ তামাকে আসক্ত থাকবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।